দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে সংঘর্ষে নিহত ৬

দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে কেন্দ্র দখল ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। সকালে ভোটগ্রহণ শুরুর আগে ও ভোট চলাকালে চট্টগ্রাম, নরসিংদী, কুমিল্লা ও কক্সবাজারে দুই পক্ষের সংঘর্ষে তাদের মৃত্যু হয়। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলায় লেলাং ইউপি নির্বাচনে দুই সদস্য প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে শফি উদ্দিন ( ৫৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন। বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।দুপুরে উপজেলার লেলাং ইউপির ৮ নং ওয়ার্ডের তোফায়েল আহমেদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে মোরগ প্রতীকের প্রার্থী জামাল পাশা ও ফুটবল প্রতীকের প্রার্থী মুরাদের সমর্থকদের মধ্যে বাগবিতণ্ডার জেরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে একজন নিহত এবং ১০ জনের মতো আহত হন। নিহত শফি উদ্দিন কার সমর্থক ছিলেন তা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কর্মকর্তা ডা. নাবিল চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বলেন, শফি উদ্দিনকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছিল। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আহত অবস্থায় আরও ১০ জনকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। তাদের চিকিৎসা চলছে।

নরসিংদী : নরসিংদীর রায়পুরায় ইউপি নির্বাচন ঘিরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার বাঁশগাড়িতে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- বাঁশগাড়ি এলাকার হেকিম মিয়ার ছেলে মো. সালাউদ্দিন (৩০), একই এলাকার জাহাঙ্গীর (২৬) ও দুলাল মিয়া (৫০)।

নরসিংদীর সহকারী পুলিশ সুপার (রায়পুরা সার্কেল) সত্যজিত কুমার ঘোষ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বাঁশগাড়ি ইউপিতে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন আশরাফুল হক সরকার। তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোবাইল ফোন প্রতীকের জাকির হোসেন। এটা নিয়ে কয়েক দিন ধরেই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। বুধবার সন্ধ্যায় দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। সারা রাত থেমে থেমে সংঘর্ষ চলে। ভোরে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান দুইজন। পরে আরও একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে সালাউদ্দিন মিয়া (৪০) নামে একজনের মরদেহ পৌঁছেছে। সালাউদ্দিনের স্ত্রী আকলিমা আক্তার বলেন, ভোরে গুলিবিদ্ধ হয়ে আমার স্বামী মারা যায়। নরসিংদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) হারুনুর রশিদ বলেন, নরসিংদী জেলা হাসপাতালে একজনের মরদেহ আর নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে আরেকটি মরদেহ আছে।

কুমিল্লা: কুমিল্লার মেঘনা উপজেলায় মানিকারচর ইউপি নির্বাচনে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে শাওন নামে একজন নিহত হয়েছেন। নিহতের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি। এ ঘটনায় আরও দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

দুপুরে আমিরাবাদ সরকা‌রি প্রাথ‌মিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করে মেঘনা থানার পরিদর্শক-তদন্ত জাকির হোসেন বলেন, আমিরাবাদ সরকা‌রি প্রাথ‌মিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে সংঘর্ষে গুরুতর আহত শাওন নামে একজন হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। কুমিল্লার পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বলেন, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

কক্সবাজার: কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুল ইউপি নির্বাচনে ভোট চলাকালে সহিংসতায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আকতারুজ্জামান পুতু (৩৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ছয়জন আহত হন। বৃহস্পতিবার সকালে খুরুশকুল ইউনিয়নের তেতৈয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, নিহত আকতারুজ্জামান খুরুশকুল ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রার্থী (বর্তমান মেম্বার) শেখ কামালের ছোট ভাই।

কক্সবাজার র‍্যাব-১৫ এর সিপিএসসি কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান  জানান, এ ঘটনায় মেম্বার প্রার্থী শেখ কামালসহ কয়েকজন আহত হন। সেখান থেকে হাসপাতালে নেওয়া হলে আকতারুজ্জামান পুতুকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।