নামিবিয়াকে হারিয়ে ভারতের সমীকরণ কঠিন করল নিউজিল্যান্ড

সব ভারতীয় নিশ্চয়ই প্রার্থনায় ছিলেন, যদি কোনোভাবে হোঁচট খায় নিউজিল্যান্ড। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। নামিবিয়াকে রীতিমতো উড়িয়ে দিয়ে নিজেদের সেমিফাইনালে যাওয়ার পথ আরও পরিষ্কার করেছে নিউজিল্যান্ড। তাতে কঠিন হয়েছে ভারতের সেমিতে যাওয়ার সমীকরণ।

শুক্রবার দুবাইয়ে নামিবিয়াকে ৫২ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। এই ম্যাচে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় নামিবিয়া।

ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ধীরস্থিরভাবেই করে কিউইরা। উদ্বোধনী জুটিতে ৩০ রান যোগ করেন ডেরেল মিচেল ও মার্টিন গাপ্টিল। ১ চার ও ১ ছক্কায় ১৮ বলে ১৮ রান করে ডেভিড ভিসার বলে গাপ্টিল এবং ১৫ বলে ১৯ রান করে স্কটজের বলে আউট হন ড্যারেল মিচেল। এরপর ২৫ বলে ২৮ রান করা উইলিয়মাসনকে ফেরান এরাসমাস। শেষদিকে ১ চার ও ৩ ছক্কায় ২১ বলে ৩৯ রানের ক্যামিও খেলেন গ্লেন ফিলিপস আর ২৩ বলে ৩৫ রান আসে জিমি নিশামের ব্যাটে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬৩ রান করে নিউজিল্যান্ড।

জবাব দিতে নেমে শুরুটা ভালো করে নামিবিয়া। ৪৭ রানের উদ্বোধনী জুটি পায় তারা। কিন্তু ২৫ বলে ২৫ রান করে মিচেল ভেন লিনগেন ফিরলে এই জুটি ভাঙে। ২২ বলে ২১ রান করে আউট হন স্টিফেন বার্ড। এরপর আর পথ খুঁজে পায়নি নামিবিয়া।

জেন গ্রিনের ২৭ বলে ২৩ ও ডেভিড ভিসার ১৭ বলে ১৬ রান কেবল ব্যবধান কমিয়েছে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১১১ রানের বেশি করতে পারেনি এই বিশ্বকাপে চমক দেখানো দলটি।

এই জয়ের পর শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে জিতলেই চলবে নিউজিল্যান্ডের। সেক্ষেত্রে স্কটল্যান্ড আর নামিবিয়ার বিপক্ষে যত বড় ব্যবধানেই জিতুক ভারত, কোনো কাজ হবে না। কারণ তখন কিউইদের জয় একটা বেশি থাকবে। ভারতের জয় হবে ৩টি আর নিউজিল্যান্ডের হবে ৪টি। তবে নিউজিল্যান্ড যদি আফগানদের সাথে হেরে যায় তাহলে নিট রান রেটে এগিয়ে থাকা দল সেমিতে যাবে।

এই গ্রুপ থেকে ৪ জয়ে সেমির টিকিট আগেই নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান।