সোনারগায়ে কফি সপের আড়ালে মাদক ও দেহ ব্যাবসা মালিক আটক

0
44

সোনারগাঁয়ে আয়ান কফি শপ নামে গড়ে উঠেছে একটি পতিতালয়, চলছে রমরমা দেহ ও মাদক ব্যাবসা। বৃহস্পতিবার সকালে অভিযান চালিয়ে কফি হাউজের মালিককে আটক করেছে থানা পুলিশ।

আটককৃতের নাম মো: আব্দুল্লাহ (৪৪), তিনি সোনারগাঁ উপজেলার কাচঁপুর ইউনিয়নের রায়েরটেক এলাকার তালেব আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের সোনরগাঁ উপজেলার কাঁচপুর চেঙ্গাইন এলাকায় গড়ে উঠেছে আয়ান কফি হাউজ। নামে কপি হাউজ হলেও এটি একটি পতিতালয় ও মাদকের আখড়া বলে জানায় এলাকাবাসী।

স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীসহ বিভিন্ন বয়সের ছেলে মেয়েরা আসা যাওয়া করছে। আইনশৃংখলাবাহিনীর নাম ভাঙ্গীয়ে বেশ কয়েকজন মিলে এ কফি হাউজটি পরিচালিত করছেন। এতে এলাকার ভালো লোকজন পরিবার নিয়ে ও ছাত্র-ছাত্রীরা প্রয়োজনীয় কাজেও এ পথে আসেনা। ফলে উপজেলা কাচঁপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাইন এলাকা পতিতালয় হিসেবে পরিচিতি পাচ্ছে একমাত্র আয়ানকফি হাউজের জন্য। এ ব্যাপারে এলাকার সচেতন মহল নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আয়ান কফি হাউজের ব্যবসায়ী জানান,আমরা কোন মেয়ে রাখিনা। প্রেমিক যুগলরা কফি হাউজে এসে সময় কাটায়। কোন গেস্ট মেয়ে চাইলে আমরা দালালদের মাধ্যমে কলেকশন করি। গোপন রেখে আমরা কাজটি করে থাকি। গোপনীয় এই ব্যবসা টিকিয়ে রাখতে এলাকার নেতা, পাতিনেতা ও প্রশাসনকে মোটা অংকের টাকা গুনতে হয় বলে দাবি করেন ওই সকল বেআইনী কফি হাউজে।

এ বিষয়ে কাচঁপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আয়ান কফি হাউজে তরুন-তরুনীরা অনেকটা গোপনে আসা যাওয়া করে। এখানে দেহ ব্যবসা হয়ে থাকে বলে আমি অভিযোগ পেয়েছি। সোনারগাঁ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে কফি হাউজের মালেককে আটক করেছে। কাচঁপুর ইউনিয়নে অসামাজিক কার্যকলাপ কোথাও চলতে দেওয়া যাবেনা। আয়ন কফি হাউজ স্থায়ীভাবে বন্ধ করার জন্য পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ বিষয়ে সোনারগাঁ থানার ভারপাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানায়, কফি হাউজের নামে যদি এধরনের অসামাজিক কর্যকলাপ হয় তাহলে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। আইনের উর্ধ্বে কেউ নয়। আমি সামাজিক ভারসাম্য নষ্ট হতে দিতে পারি না।

LEAVE A REPLY