বন্দরে সেফটি ট্যাংকি বিস্ফোরনের ঘটনায় ৪তলা ভবনের আংশিক দেয়াল ভেঙ্গে পরায় এলাকাবাসীর মাঝে আতংক

0
10

বন্দর প্রতিনিধি:
বন্দরে সেফটি ট্যাংকি বিস্ফোরনের ঘটনায় ধংসপ্ত বহুতল ভবনের পাশে গড়ে উঠো অপর একটি চারতলা ভবনের আংশিক দেয়াল রাতের আধারে হঠাৎ ভেঙ্গে পরায় এলাকাবাসী মাঝে আতংক বিরাজ করছে। গত ৯ মে (শনিবার) রাত সাড়ে ১১টায় বন্দর উইলসন রোডের মোল্লাবাড়ীস্থ দিঘিরপার এলাকায় রতন মিয়ার ৪ তলা ভবনে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় প্রানহানীর কোন সংবাদ পাওয়া না গেলেও ড্রেনেজ থেকে র্নিঘত গ্যাসে মাছুম (৩৫) নামে এক অটো চালক মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। স্থানীয় এলাকাবাসী আহতকে দ্রুত উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। দেয়াল ধ্বসে পরার সংবাদ পেয়ে বন্দর থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এ ঘটনায় বন্দর উপজেলা প্রশাসন উল্লেখিত এলাকায় লকডাউন করে দিয়েছে বলে এলাকাবাসী এ কথা জানিয়েছে। জানা গেছে, গত ৮ মে (শুক্রবার) সকাল ৬টায় বন্দরের উইলসন রোডের দীঘিরপাড় মোল্লাবাড়ীস্থ রাবেয়া মঞ্জিলের ৫ম তলা ভবনের নিজ তলার একটি ফ্লাটে সেফটি ট্যাংকি বিষ্ফোরনের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই বাড়ির নিচতলা ফ্লাটের ভাড়াটিয়া হোশিয়ারী ব্যবসায়ী খোরশেদ আলমের দুই ছেলে মাশনুন (১২) ও জিসান (৮) ঘটনাস্থলে মৃত্যু বরণ করে। সে সাথে এক অন্তঃসত্বা গৃহবধূ লাবনী নিহতসহ আরো ৫ জন গুরুত্বর আহত হয়। এ ঘটনার ১ দিন পর গত শনিবার রাতে রাবেয়া মঞ্জিলের পাশে গড়ে উঠা রতন মিয়া ৪ তলা ভবনের আংশিক দেয়াল ভেঙ্গে পরার কারনে সাধারন জনগনের মাঝে আবারও আতংক ছড়িয়ে পরে। এ ব্যাপারে বন্দর থানার অফিসার ইনর্চাজ রফিকুল ইসলাম জানান, সেফটি ট্যাংকি বিস্ফোরেনে সময় রাবেয়া মঞ্জিলসহ তার পাশের একটি ৪তলা ভবন আংশিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। শনিবার রাতে ক্ষতিগ্রস্থ ৪তলা ভবন থেকে আংশিক দেয়াল ভেঙ্গে রাস্তায় পরে যায়। এ ঘটনায় সাধারন জনগনের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পরে। আমাদের পুলিশ সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় হতাহতের কোন সংবাদ পাওয়া যায়নি বলে জানান।

LEAVE A REPLY