দেওভোগের রথযাত্রায় এসে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলো মা-মেয়ে ও শাশুড়ি

0
44

প্রেসবিডি ডটনেট: সোনারগাঁয়ে বাস চাপায় মা-মেয়ে ও শাশুড়ি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বাস চালকসহ আহত হয়েছেন অন্তত আরও আটজন। তাদের মধ্যে বাস চালকসহ তিনজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) রাত সাড়ে ১০ টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে উপজেলার কাঁচপুর মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর সোনাপুর এলাকার ভাড়াটিয়া দুলাল বর্মণের স্ত্রী সঙ্গিতা রানী বর্মন (৩৫), মেয়ে বর্ষা বর্মন (১৬) ও তার শাশুড়ি দেবী বর্মন (৫৫)। মরদেহগুলো উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

দুর্ঘটনায় নিহত ওই তিনজনই শহরের দেওভোগ থেকে বের হওয়া জগ্নাথ দেবের রযাত্রায় অংশ নিয়েছিলেন এবং রাতে মন্দিরে প্রার্থনা শেষে কাঁচপুরের সোনাপুর ভাড়াটিয়া বাড়িতে ফিরছিলেন।

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে কাচপুর হাইওয়ে থানার ওসি কাইয়ূম আলী।

বৃহস্পতিবার রাতে নারায়ণগঞ্জে জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা শেষে রাতে বাড়ি ফেরার পথে মহাসড়কে কাঁচপুর ব্রিজের প‚র্ব পাশে এলাকায় রাস্তা পার হওয়ার সময় সিলেটগামী রাসেল পরিবহন নামে যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে নিহত হন তিন নারী।

পরে একই সময় বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী মালবাহী একটি লরির সঙ্গে ওই বাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে বাসচালকসহ আরো ৮ যাত্রী আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। তবে বাসচালকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ওসি আরও জানান, বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যে লরিতে ধাক্কা দিয়েছিল ওই লরিটি আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে লরিটি ছেড়ে দেওয়া হবে। আর বাসটিও আটক রয়েছে।

LEAVE A REPLY