উপকার করলে বাঘে খায় ল্যাব এইড নারায়ণগঞ্জ শাখা

0
9

বিশেষ প্রতিনিধি: কথায় আছে উপকার করলে বাঘে খায় আর উদোর পিন্ডি বুদোর ঘারে, রুপ কথার এই কথা গুলোর সাথে সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া ল্যাব এইডের ঘটনার সাথে মিল খুজে পাওয়া গেছে।
গত ২১ জুলাই সিদ্ধিরগঞ্জ চিটাগাং রোডস্থ জাহেদুল  ইসলাম নামক এক ব্যাক্তি তিনি করোনা আক্রান্ত নন কিন্তু মনের সন্দেহ দুর করতে এসেছিলেন ল্যাব এই হাসপাতালে করোনা টেষ্ট করতে। মানি রিসিট কাটার পর জানতে পারেন যিনি নমুনা সংগ্রহ করবে, সে বর্তমানে নমুনা সংগ্রহে বাহিরে আছে, তখন তার নিজের জরুরী কাজ থাকায় নমুনা সংগ্রহের ব্যাক্তির ফোন নাম্বার নিয়ে চলে যায়। এর এক ঘন্টা পর তিনি নারায়ণগঞ্জ ডাক অফিস হতে নিজের কাজ শেষ করে নমুনা সংগহ ব্যাক্তিকে ফোন দিয়ে অনুরোধ করেন তার নমুনা এখান থেকে সংগ্রহ করা হোক। পরবর্তিতে নমুনা সংগ্রকারী পুরান কোর্ট ম্যাজিষ্টেট বিল্ডিং বুতের সংগ্রহকারীদের সাথে তার সক্ষ্যতা থাকায় জনি বনিকের নমুনা সংগ্রহ করে থাকে

ঠিক মুহুত্বে কয়েকজন সাংবাদিক বিষয়টি জানার পর সিভিল সার্জনকে অবিহিত করলে তাৎক্ষনিক সিভিল সার্জন পরিদর্শনে এসে ল্যাব এইডকে সতর্ক করেন এবং করোনা টেষ্ট বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করে। সিভিল সার্জনের নির্দেশক্রমে নমুনা সংকারীকে তাৎক্ষনিকভাবে চাকরি হতে বরখাস্ত করা হলেও মুল রহস্য উপরোক্ত বিষয়বস্তু এই প্রতিবেদককে জানালেন ল্যাব এইড নারায়ণগঞ্জ শাখার ম্যানেজার মোঃ সোহেল। তিনি আরো জানান সিভিল সার্জন যদি সময় জনি বনিকের নমুনা আমাদের ল্যাবে না পেতো তাহলে বিষয়টি এমন ছিল আমরা আমাদের ফিস নিয়ে সরকারী ফিসে এই নমুনা গুলো টেষ্ট করে থাকি। ল্যাব এইড একটি বড় প্রতিষ্ঠান সেখানে এই ধরনের ভুল আমাদের এখান থেকে হওয়ার কোন সুযোগ নেয়। আমরা জনগন তথা আগত রোঘীদের সঠিক সেবা নিশ্চিত সহ সাধারণ মানুষ যদি ডাক্তার দেখিয়ে ফিস দিতে অপারক হয় তাদের জন্য সব সময় ছার দিয়ে থাকি

LEAVE A REPLY